Categories

Stay connected

Trending News

Subscribe Now

* You will receive the latest news and updates on your favorite celebrities!

Trending News

Blog Post

Inspirational

আসুন পাখি থেকে শিখি 

১. রাফেলস গ্রিফন ভালচারঃ

শকুন প্রজাতির পাখি। এত উচ্চতা দিয়ে ওড়ে যেখানে শ্বাস প্রশ্বাস চালিয়ে নেয়া পর্যন্ত; প্রায় অসম্ভব বটে। কিন্তু এই পাখিটির বিশেষ হিমোগ্লোবিন প্রসেস দক্ষতার কারণে সে সেখানেও নিজের শরীরে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবরাহ করতে পারে। জানি বিশ্বাস করবেন না তারপরেও সত্য টা বলছি এই ভালচার ক্লাব এর সদস্য সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ৩২০০০ ফিট উপর দিয়ে টানা ৪ ঘণ্টা উড়তে পারে এবং এত উচ্চতা থেকেও তার নিচের ন্যাভিগেশন এও কোন প্রকার সমস্যা হয় না।

২. প্যারাগ্রিন ফেলকনঃ

বাজপাখি ক্লাব এর প্যারাকম্যান্ডো হচ্ছেন এই পেরাগ্রিন ফেলকন সাহেব। কেনই বা বলবনা বলেন; এই পাখিটি তার নাম এর সাথে যুক্ত করে নিয়েছে সোনালি উপাধি। আর তা হচ্ছে এই পাখিটি ই হচ্ছে পৃথিবীর বেঁচে থাকা সবচেয়ে দ্রুততম প্রানির মধ্যে প্রথম। হয়তো আপনি আপনার কয়েক কোটি টাকার গাড়িতে চড়ে ২০০ বা ২৫০ কিলোমিটার গতিতে দামি গাড়ি চালিয়ে ভাবছেন বাহ আমি তাহলে অনেক গতিতে এগিয়ে চলছি গন্তব্যের দিকে। ঠিক তখন হয়তো কোন আফগানি ফেলকন শিকারের দিকে প্রায় ৪০০ ( ৩৯০ রেকর্ডেড ) কিলোমিটার গতিতে উড়ে যাচ্ছে অনায়াসে।

৩. সুথি সেয়ারওয়াটারঃ

নিউজিল্যান্ড এর এই হাঁস প্রজাতির পাখিটি মনে হয় আকাশের শেষ সীমা দেখতে চায় হয়তবা উড়তে ভালবাসে অনেক।আমরা হয়তো বছরে বা কয়েক বছর পর ঢাকা হতে কক্সবাজার ( ৪০০ কিঃমিঃ ) কিংবা ঢাকা থেকে ফ্রান্স এর রাজধানী প্যারিস ঘুরতে যাই ৭৮৯৮ কিঃমি ) অতিক্রম করে; সেখানে গিয়ে সেলফি তুলে তা আবার সোশ্যাল মিডিয়া তে প্রচার করি। কিন্তু এই সুথি সেয়ারওয়াটার বছরে ৬৪০০০ কিঃ মিঃ এর বেশি ওড়ে। তার মানে দাড়ায় এই পাখিটি বছরে চাইলে পুরো পৃথিবী প্রায় দুই বার অতিক্রম করতে পারবে 
( ৪০০৭৫ কিঃ মিঃ )।

লেখার শুরুতে মনে হয়েছিলো শেষে মোরাল অফ দা স্টোরি লিখবো, কিন্তু নিজে লিখতে লিখতে কথা গুলোর মানে বুঝে গিয়েছি। তাই আর লিখলাম না, কেননা আমার মতো অল্প বুঝ মানুষ যদি বুঝতে পারে তবে আমার মনে হয় সকলেই বুঝতে পারবে এই লেখার অর্থ বা উদ্দেশ্য।

আপনি কি বুঝেছেন চাইলে কমেন্ট করে জানিয়ে দিতে পারেন। সময় নিয়ে পড়বার জন্য ধন্যবাদ।

Previous

আসুন পাখি থেকে শিখি

Related posts

Leave a Reply

Required fields are marked *